মেইন ম্যেনু

উপাচার্যকে অসহযোগিতার ঘোষণা : অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের পর এবার কর্মচারি ইউনিয়ন

এইচ. এম নুর আলম, বেরোবি প্রতিনিধি: রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) এবার উপাচার্য ড. একে এম নূর-উন-নবীকে সকল কাজে অসহযোগিতার ঘোষণা দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্মচারি ইউনয়ন।

সোমবার বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় কর্মকর্তাদের সংগঠন (বেরোবি) অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে সর্বাত্মক অসহযোগিতা করার ঘোষনা দেয়ার পরপরই মঙ্গলবার একই ঘোষনা দিয়েছে সংগঠনটি।।

মঙ্গলবার বিকাল চারটার সময় পাঁচ দফা দাবি নিয়ে উপাচার্য ড. একে এম নুর উন নবী এর সাথে সাক্ষাত করার পর এ ঘোষনা দেন কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ।

কর্মচারীদের চাকুরী স্থায়ীকরন, বকেয়া বেতন পরিশোধ করন, আপগ্রেডেশন/ প্রমোশন বোর্ড গঠন, নিরাপত্তায় নিয়োজিত কর্মচারীদের ওভার টাইম চালুসহ পুরাতন কর্মচারীদের চাকুরী স্থায়ী না হওযা পর্যন্ত নতুন করে বাইরে থেকে লোক নিয়োগ বন্ধের দাবিসমূহ উথ্থাপন করেছেন কর্মচারি ইউনিয়ন।

কর্মচারীরা অভিযোগ করেন, উপাচার্য বিভিন্ন কারন দেখিয়ে দীর্ঘদিন থেকে কর্মচারীদের আপগ্রেডেশন/ প্রমোশন দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও একাধিকবার তা ভঙ্গ করেছেন। একই বিষয় নিয়ে বারবার তার কাছে গেলেও তিনি শুধু আপগ্রেডেশন/ প্রমোশন নীতিমালা রিভিউ করার নামে কালক্ষেপন করেছেন।

কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ বলেন,আমাদের দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা উপাচার্য সংশ্লিষ্ট কোন কাজে অংশগ্রহন করব না। এমনকি দাবি আদায় না হওযা পর্যন্ত তার গাড়ির ড্রাইভারও গাড়ি চালাবেন না । এমনকি দাবিসমূহ আদায় না হলে আগামী ২৮ জানুয়ারি আসন্ন সিন্ডিকেটও ভন্ডুল করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন ও কর্মচারি ইউনিয়ন।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং ছাত্রছাত্রী সংশ্লিষ্ট কাজে কোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হবে না বলে জানিয়েছেন উভয় সংগঠনের সভাপতি।

এ ব্যাপারে উপাচার্য ড. একে এম নুর- উন- নবী এর সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।






মন্তব্য চালু নেই