মেইন ম্যেনু

ইসি গঠনে ২০ জনের খসড়া তালিকা প্রস্তুত

নতুন নির্বাচন (ইসি) কমিশন গঠনের লক্ষ্যে সার্চ কমিটির কাছে দেশের প্রধান সাতাশটি রাজনৈতিক দল মোট ১২৫ জনের নাম জমা দিয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম। তিনি বলেন, ‘ এই ১২৫ জনের তালিকা থেকে আমরা ২০ জনের একটি শর্ট লিস্ট করেছি। এই শর্ট লিস্ট থেকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বাছাই করে আমরা রাষ্ট্রপতির কাছে ইসি গঠনের নাম জমা দিতে পারব।’ মঙ্গলবার বিকালে সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত সার্চ কমিটির মিটিং শেষে তিনি এ তথ্য জানান।

রাজনৈতিক দলগুলোর জমা দেওয়া নামের মধ্যে কোনও মিল আছে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘প্রায় মিল আছে। আমরা এই নামগুলো থেকেই সজ্জনদের বাছাই করে নিতে পারব।’ তিনি বলেন, ‘বিশিষ্টজনরা যে পরামর্শ দিয়েছেন, সেই অনুযায়ীই আমরা নাম বাছাই করেছি।’

এর আগে মঙ্গলবার বিকালে সার্চ কমিটির কাছে খাম দিয়েছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ ২৭টি রাজনৈতিক দল এর মধ্যে নামের তালিকা দিয়েছে ২৫টি দল। আওয়ামী লীগ ও মন্ত্রীপরিষদ সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচন কমিশন গঠনে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ৫ সদস্যের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রস্তাবিত ব্যক্তিরা হলেন—মোল্লা অহিদুজামান, নুর মোহাম্মদ, আব্দুল করিম, মঞ্জুর হোসেন ও সাদেকা হালিম। অন্যদিকে বিএনপির পক্ষ থেকে যাদের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে তারা হলেন- তোফায়েল আহমেদ, সালেহ উদ্দিন আহম্মেদ, তাসকিম এ রহমান, আসাফউদ্দৌলা ও শাহদীন মালিক।

মঙ্গলবার বিকেল তিনটা পর্যন্ত এ তালিকা জমা দেওয়ার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া ছিল। সময় শেষে অতিরিক্ত সচিব আব্দুল ওয়াদুদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘রাষ্ট্রপতি মোট ৩১টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সাক্ষৎ করেন। পরে রাষ্ট্রপতির গঠন করা সার্চ কমিটি ওই ৩১টি দলের কাছে নির্বাচন কমিশন গঠনে নামের তালিকা চেয়ে চিঠি দেয়। বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে ২৭টি দল সচিবালয়ে এসে নামের তালিকা জমা দিয়েছে। আমরা এগুলো সার্চ কমিটির কাছে পৌঁছে দেব।’

নামের তালিকা জমা দেয়নি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, বিকল্পধারা বাংলাদেশ, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ এবং গণফোরাম।

বেলা পৌনে ১টার দিকে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দলের দফতর সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ সচিবালয়ে উপস্থিত এ নামের তালিকা জমা দেন।

অন্যদিকে, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী ও চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব আবদুস সাত্তার বেলা সোয়া ১২টার দিকে ৫ সদস্যের একটি নামের তালিকা জমা দেন।






মন্তব্য চালু নেই