মেইন ম্যেনু

আসার আগেই হিট রইসের কালা চশমা

ব্যাটারি নেহি বোলনে কা! সাবধান করে দিচ্ছে রইস। আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি সময় হাজির হচ্ছে সে। তার আগেই রেড অ্যালার্ট জারি করলেন শাহরুখ খান!

চশমা পরা মানুষদের ‘ব্যাটারি’, ‘চশমিশ’ ইত্যাদি মশকরা সহ্য করতে হয় প্রায়ই। তাদের সকলের হয়ে শাহরুখই (পড়ুন রইস) এবার দাবড়ানিটা দিয়েছেন। ছবির নতুন টিজারে রইসের মুখে ‘ব্যাটারি নেহি বোলনে কা’ ইঙ্গিত দিচ্ছে সে রকমই। এর মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোরাফেরা করছে ‘রইস’এর নতুন ধরনের মিম-পোস্টার। আই-চার্ট আর চশমা-পরা সেলেবদের চিনে নেওয়ার খেলায় মেতেছেন নেটিজেনরাও! এমনকী, অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে ‘রইস’ সানগ্লাসও।

সেই ‘ডিডিএলজে’র সময় থেকে বিভিন্ন ছবিতে নানা রকম সানগ্লাস নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছেন শাহরুখ। ‘ডন’ বা ‘যব
তক হ্যায় জান’এ রে-ব্যান অ্যাভিয়েটরে তাঁর সিগনেচার লুক মনে গেঁথে রয়েছে দর্শকের। ‘রইস’এর পোস্টার বা ট্রেলারে এর মধ্যেই প্রায় চারটে আলাদা ধরনের চশমা আর সানগ্লাসে দেখা গিয়েছে কিংগ খানকে। ‘জালিমা..’য় এক রকম, ‘আ রহা হুঁ ম্যায়..’এ আরেক রকম! প্রচারের ফাঁকে দিব্যি সেল্‌ফি তুলে যে মাঝে মাঝেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করছেন শাহরুখ, সেখানেও দেখা যাচ্ছে তাঁর নিত্যনতুন সানগ্লাস।

ছবির লুক টেস্টের সময় প্রায় ৫০টা আলাদা ধরনের চশমার ফ্রেম পরখ করে দেখেছিলেন শাহরুখ আর ‘রইস’এর পরিচালক রাহুল ঢোলাকিয়া। বেঙ্গালুরু থেকে আনানো কিংবা চাইনিজ ডিলারদের থেকে নেওয়া ফ্রেম, সব রকম ট্রাই করে ফেলেছিলেন। ছবির প্রোমোশনের অন্যতম হাতিয়ার যে ‘কালা চশমা’, এতদিনে বুঝে গিয়েছেন দর্শক। নির্মাতারা তাঁদের কাজের আর কাছের মানুষদের উপহার হিসেবে ‘রইস’ গ্লাস পাঠাচ্ছেন ইতিমধ্যেই। ছবি-মুক্তির প্রাক্কালে চোখ বোলানো যাক রইসের চশমা-চর্চায়!






মন্তব্য চালু নেই