মেইন ম্যেনু

আলিফ ও কবিরাজ বাহিনীর ২৫ বনদস্যুকে কারাগারে প্রেরণ

বাগেরহাটে দুর্ধর্ষ বনদস্যু আলিফ ও কবিরাজ বহিনীর ২৫ সদস্যকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেনআদালত। বাগেরহাট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সিরাজুল ইসলাম তাদের জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এর আগে শনিবার বিকেলে র‌্যাব-৮ এর ডিএডি মো.আমজাদ হোসেন বাদি হয়ে দস্যুতা ও অস্ত্র আইনে বনদস্যু আলিফ ও কবিরাজ বাহিনীর ২৫ সদস্যের নামে শরনখোলা থানায় মামলা দায়ের করেন। রোববার বিকেলে ওই মামলায় তাদের আদালতে পাঠায় শরনখোলা থানা পুলিশ।

দস্যুতা ও অস্ত্র মামলায় কারাগারে পাঠানো আসামীদের মধ্যে রয়েছে- বনদস্যু আলিফ বাহিনীর প্রাধান মো. আলিফ মোল্লা ওরফে দয়াল (৪২), মো. রেজাউল ইসলাম শেখ ওরফে ছোট (২৮), মো. সফিনুর রহমান সফি (২০), মো. আব্দুল্লাহ্ আল মামুন ওরফে আব্দুল্লাহ (৪০), মো. হযরত আলী (৩৮), মো. শাহিনুর আলম ওরফে শাহিন (২৯), মো. জামির আলী জামু (৪৬), মো. আলামিন মোল্লা (৩৫), মো. তাইজেল ওরফে বড় ভাই(২৭), মো. সিরাজুল ইসলাম ওরফে সুমন(৪১), মো. আলমগীর গাজী (২৬),মো. কামাল শেখ (৩৮), মো. হোসেন আলী শেখ ওরফে ভাগ্নে (২৮), মো. সেলিম মোড়ল (৩৯), মো. হযরত আলী গাইন ওরফে আগুল কাটা হযরত (৩৯), মো. পিয়ার আলী (৩৭), মো. লিটন বিশ্বাস ওরফে দেওয়ান (৩২), মো. হাবিবুর রহমান ওরফে বাছা (২৭), মো. এনামুল গাজি ওরফে এনা (৩৫)।

এছাড়া কবিরাজ বাহিনীর প্রধান মো. ইউনুস আলী ওরফে কবিরাজ ওরফে লাদেন (৩৮), মো. নাজিম শেখ (৪৮), মো. আফতাব উদ্দিন ফকির ওরফে বেয়াই (৩৩), মো. আবু শেখ (৪৬), মো. সেলিম হাওলাদার (৩০), মো. আশরাফ হোসেম ওরফে রাজু (৩৭)।

শনিবার সকাল ১১ টায় পটুয়াখালীর শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আসাদুজ্জামান খান কামালের হাতে ৩১টি অস্ত্র জমা দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে বনদস্যু আলিফ ও কবিরাজ বাহিনীর ২৫ সদস্য আত্মসমর্পণ করেন। পরে ওই দিন বিকেলেই অস্ত্রসহ বনদস্যুদের শরণখোলা থানায় আনা হয়। পরে র‌্যাবের পক্ষ থেকে মো.আমজাদ হোসেন বাদী হয়ে বনদস্যুদের নামে মামলা দায়ের করেন।






মন্তব্য চালু নেই