মেইন ম্যেনু

‘আযান’ হলো পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ সুর : পিন্টু ঘোষ

‘আযান’-এর ধ্বনি নিয়ে গত দুইদিন ধরে ভারত বর্ষে শুরু হয়েছে তুলকালাম কাণ্ড। এর প্রধান কারণ ভারতীয় জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী সোনু নিগম। ‘আযান’ ধ্বনিকে কটাক্ষ করে ১৭ এপ্রিল টুইট করার পর গোটা ভারতবর্ষে দানা বাধে আলোচনা-সমালোচনা। যা আছড়ে পড়েছে বাংলাদেশেও।

ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী সোনু নিগম। বলিউডের অসম্ভব জনপ্রিয় গানগুলোর বেশির ভাগেই লেগে আছে তার মায়াকাড়া কণ্ঠ। আর এই তুমুল জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী ‘আযান’ নিয়ে একটি মন্তব্য করে গোটা ভারতবর্ষে তোলপাড় ফেলে দিয়েছেন। মূলত ১৭ এপ্রিল ভোরে টুইট করেন সোনু।

টুইটে তিনি মুসলিমদের ‘আযান’ নিয়ে একটি আপত্তি জানান। কিন্তু সেটা আযানের বিরুদ্ধে নয়, বরং মাইকে আযান দেয়ার প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করেন এই তারকাশিল্পী। যেখানে তিনি লিখেন, আমি মুসলিম নই। অথচ প্রতি দিন সকালে আজানের আওয়াজে আমার ঘুম ভাঙে। জোর করে এভাবে ধর্মের সশব্দ ঘোষণা এ দেশে কবে বন্ধ হবে?

তার এমন টুইটের পর সোশাল মিডিয়ায় বিষয়টি আলোচনার শীর্ষে চলে যায়। বিশেষ করে সোনুর এমন কাণ্ডে বলিউডের তারকাদেরও দুই ভাগ হতে দেখা যায়। আর ১৮ এপ্রিল সোনুর এমন মন্তব্যকে অর্বাচীন দাবি করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন দেশের নামকড়া ব্যান্ড দল ‘চিরকুট’-এর প্রাক্তন গিটারিস্ট ও ভোকাল পিন্টু ঘোষ।

তিনি ‘আযান’ ধ্বনিকে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ সুর বলে মন্তব্য করেন। সেইসঙ্গে সোনু নিগমের আন্দাজ নিয়েও প্রশ্ন তুলেন এই শিল্পী। ফেসবুকে লিখেন, সোনু নিগম-এর গান আমার (ব্যক্তিগত) কোনোদিন ও ভালো লাগে নাই। কই কোনোদিন বলি নাই? সম্মান করতাম, কিন্তু আজ তা ও হারালেন। গো টু হেল।

এরপর আযান নিয়ে এই শিল্পী বলেন, ‘আযান’ পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ সুর। জীবনে বহুবার এই মিষ্টি সুরে আত্মা কেঁপে উঠেছে। আযানের ধ্বনি শুনলে বাকি সব আওয়াজ কেওয়াজ বন্ধ করে দিই সম্মান করি। ভালবাসি। আমার কাছে যারা ভোকাল এর ক্লাস নিতে আসে তাদের প্রথম হোম ওয়ার্ক (খালি গলায় আযান আর আমার জাতীয় সংগীত) তারপর অন্য আলাপ। জানিনা কে কি ভাবে নিবেন। আমি নিজেও আযান গলায় তোলার চেষ্টা করি। কারণ আমি বিশ্বাস করি, পৃথিবীর তাবৎ সুর এর মধ্যে বিদ্যমান তার নাম ‘আযান’।






মন্তব্য চালু নেই