মেইন ম্যেনু

একরাম হত্যা

আমাকে জড়িয়ে সংবাদ প্রকাশ করে লাভ হবে না

ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একরামুল হক একরাম হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে ফেনী জেলা আওয়ামী লীগ প্রতিবাদ সভা করেছে।

সভায় ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম হাজারী বলেছেন, ‘একরাম হত্যাকাণ্ডে জড়িত খুনীদের প্রশ্রয় দিলে ফেনীতে আরো খুন হবে। বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় আমাকে জড়িয়ে যে সংবাদ ছাপা হচ্ছ তা ষড়যন্ত্র। এ ধরনের ষড়যন্ত্রে কোনো লাভ হবে না।’

শনিবার বিকেলে শহরের শহীদ মীনারে আয়োজিত ওই সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নিজাম হাজীরা আরো বলেন, ‘প্রকৃত খুনীরা যেন একজনও রেহাই না পায়। তাদের কঠোর ও কঠিন শাস্তি দিতে হবে। আমি হত্যাকারীদের ফাঁসির মঞ্চে দেখতে চাই। আমার বিরুদ্ধে যড়যন্ত্র করে উন্নয়নে বাধাগ্রস্ত করা যাবে না।’

ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুর রহমান বিকমের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য জাহানারা বেগম সুরমা, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক আজিজ আহম্মদ চৌধুরী, সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আক্রামুজ্জমান, খাইরুল বাশার তপন, ফেনী পৌরসভার মেয়র হাজী আলা উদ্দিন, ফুলগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলিম, জেলা যুবলীগের আহবায়ক দিদারুল কবির রতন, কামাল উদ্দিন মজুমদার, মীর আবদুল হান্নান, আইনুল কবির শামীম, করিম উল্যাহ বিকম, মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া প্রমুখ।

হাজারীর সমাবেশ বর্জন: হত্যাকারীদের সঙ্গে একাত্মতা নয় এ স্লোগানে জেলা আওয়ামী লীগের সমাবেশে বর্জন করে সড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে ব্যারিকেড দেয় একরাম সমর্থকরা। সমর্থকরা বিক্ষোভ করে বলেন, একরাম হত্যাকারীদের সাথে একাত্মতা নয়।

একরাম হত্যার প্রতিবাদ সমাবেশের নামে ‘নিজাম হাজারীর ব্যক্তিগত প্রতিবাদ’ সমাবেশ করেছে বলে অভিযোগ একরাম সমর্থকদের। বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ায় একরাম হত্যাকাণ্ডে নিজাম হাজারীর নাম আসায় তার প্রতিবাদ করেছে ওই এমপি। তাছাড়া সমাবেশে নিজাম হাজারীর সাফাই গেয়ে বক্তব্য দিয়েছে তার সমর্থকরা।






মন্তব্য চালু নেই