মেইন ম্যেনু

আমরা উদ্বিগ্ন : মিজানুর

জাতীয় মানবাধকিার কমশিনরে চয়োরম্যান মজিানুর রহমান বলছেনে, ‘আমাদরে প্রত্যকেরে ভতেরে আতঙ্ক বরিাজ করছ। আমরা উদ্বগ্নি ও চন্তিতি। এ অবস্থা থকে স্বস্তি ফরিয়িে আনতে হলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহনিীকে কঠোর ভূমকিা পালন করতে হব।

শুক্রবার সকালে পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় দুই দনিব্যাপী অনুষ্ঠতি মানবাধকিার র্কমশালা ও মানবাধকিার র্কমী সমাবশেরে উদ্বোধনকালে মজিানুর রহমান এসব কথা বলনে।

জাতীয় মানবাধকিার কমশিন ও ফারয়িা লারা ফাউন্ডশেনরে যৌথ উদ্যোগে ওই র্কমশালা ও র্কমী সমাবশেরে আয়োজন করা হয়।

মানবাধকিার কমশিনরে চয়োরম্যান বলনে, ‘দশেরে এ অবস্থার দায় রাষ্ট্ররে। তবে এ কথাও মনে রাখতে হব,ে নাগরকিদরে নরিাপত্তা ও মানবাধকিার সুরক্ষা করা কবেল সরকাররে একার দায়ত্বি নয়। আর এটা পারস্পরকি দোষারোপরে বষিয়ও নয়। রাষ্ট্র ও সরকাররে ওপর দায়ত্বি চাপয়িে দয়িে নীরবে বসে থাকা যুক্তযিুক্ত নয়।’

তনিি আরো বলনে, ‘রাষ্ট্র কতটা দয়িছে,ে সে প্রশ্ন না-করে বরং আমি রাষ্ট্রকে কী দয়িছেি সইে প্রশ্ন করুন নজিকে।ে তবইে দশেে শান্তি আসব,ে মানবাধকিার লঙ্ঘনরে ঘটনা কমব।ে’

অনুষ্ঠানে অন্যদরে মধ্যে বক্তব্য দনে কমশিনরে সদস্য কথাসাহত্যিকি সলেনিা হোসনে, ফারয়িা লারা ফাউন্ডশেনরে সহসভাপতি আনোয়ার হোসনে খান, মানুষরে জন্য ফাউন্ডশেনরে সমন্বয়ক বনশ্রী মত্রি নয়িোগী, পটুয়াখালীর অতরিক্তি পুলশি সুপার এ এইচ এম আজমিুল হক প্রমুখ।

র্কমশালায় মানবাধকিার, নারী অধকিার ও নারী শক্ষিা বষিয়ে বশে কয়কেটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। বরগুনা ও পটুয়াখালী জলোর প্রশাসনরে র্কমর্কতা, নাগরকি সমাজরে প্রতনিধি,ি বভিন্নি গণমাধ্যমরে র্কমী ও তৃণমূল র্পযায়রে মানবাধকিারর্কমীসহ ৭০ জন প্রতনিধিি অংশ ননে র্কমশালায়। শনবিার বরগুনায় র্কমশালার দ্বতিীয় অধবিশেন।






মন্তব্য চালু নেই