মেইন ম্যেনু

আবারো শাহরুখকে দেশদ্রোহী বলে তোপ বিজেপি নেতার

অসহিষ্ণুতা বিতর্ক যেন ছেড়েও ছাড়ছে না শাহরুখ খানকে৷ ‘রইস’ মুক্তির মাত্র কয়েকদিন আগে ফের মাথাচাড়া দিল তা৷ পরোক্ষে শাহরুখকে দেশদ্রোহী বলেই তোপ দাগলেন বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়৷

নাম না করেই বলিউড সুপারস্টারকে বিঁধেছেন তিনি৷ শাহরুখের ‘রইস’ ছবির সঙ্গেই মুক্তি পাচ্ছে হৃতিক রোশনের ‘কাবিল’৷ এ দুই ছবি নিয়ে সিনেপ্রেমীদের মধ্যে চাপানউতোর চলছেই৷ এবার ছবি দুটির নাম ব্যবহার করেই শাহরুখকে এক হাত নিলেন বিজেপি নেতা৷ টুইট করে জানালেন, যে ‘রইস’ দেশের নয়, সে কোনও কাজের নয়৷ বরং ‘কাবিল’ দেশভক্তের পাশেই দাঁড়ানো উচিত৷ নাম না করলেও শাহরুখই যে তাঁর লক্ষ্য,

সে ইঙ্গিত স্পষ্ট৷

পঞ্চাশে পা দিয়েই এক সাক্ষাৎকার নিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন শাহরুখ৷ দেশে বাড়তে থাকা ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা নিয়ে মুখ খুলে নানা সমালোচনায় বিদ্ধ হয়েছিলেন৷ গোদের উপর বিষফোড়া হয়ে দাঁড়ায় ভারতীয় ছবিতে পাক শিল্পীদের কাজ করা নিয়ে জারি হওয়া ফতোয়া৷ শাহরুখের রইস-এ কাজ করেছেন পাক অভিনেত্রী মাহিরা খান৷ উরি হামলার পর যখন এ ফতোয়া লাগু হয়, ততদিনে রইস-এর কাজ প্রায় শেষ হয়েছে৷ একই ইস্যুতে বিপাকে পড়েছিল করণ জোহরের ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ও৷

শেষমেশ মুচলেকা দিয়ে ও সেনা তহবিলে অর্থ জমা দিয়ে ছবিটি মুক্তি পায়৷ এ নিয়ে তাই আগেভাগেই রাজ ঠাকরের সঙ্গে দেখা করেন শাহরুখ৷ মাহিরা কোনওরকম প্রচারে অংশ নেবেন না জানানোর পর, ছবি মুক্তিতে কোনওরকম বাধাও আসেনি৷ তবে মুক্তির ঠিক আগে আবার নতুন করে ঝামেলায় পড়লেন৷ অসহিষ্ণুতা বিতর্ক নিয়ে এর আগেও শাহরুখকে নিশানা করেছিলেন কৈলাশ বিজয়বর্গীয়৷ জানিয়েছিলেন, শাহরুখ ভারতে বাস করলেও তার মন পড়ে আছে পাকিস্তানে৷ অসহিষ্ণুতা নিয়ে মুখ খোলার জেরে তার প্রশ্ন ছিল, মুম্বাই হামলার সময় শাহরুখ খান কোথায় ছিলেন? ছবি মুক্তির আগে এবার নাম না করে ফের কিং খানকে বিঁধলেন তিনি৷

যদিও এ সব সত্ত্বেও ছবির প্রমোশন চালিয়ে যাচ্ছেন শাহরুখ খান৷ আর তার সঙ্গী খুদে আব্রামও৷ বাবার মতোই 2D চশমা পরে খুদে রইস হয়ে উঠেছে সেও৷






মন্তব্য চালু নেই