মেইন ম্যেনু

আদালতের আদেশকে বুড়ো আঙ্গুল ট্রাম্প প্রশাসনের

যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আদালতের দেয়া সাময়িক স্থগিতাদেশ মানছে না প্রশাসন। আদালতের আদেশ উপেক্ষা করে বিশ্বের সাতটি মুসলিম প্রধান দেশের শরণার্থী ও অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির ডিপার্টমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটি (ডিএইচএস)।

এর আগে শুক্রবার নির্বাহী আদেশে যুক্তরাষ্ট্রে শরণার্থী গ্রহণ কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। ইরান, ইরাক, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান ও ইয়েমেনের শরণার্থী ও অভিবাসীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা ৯০দিন বন্ধ রাখার আদেশ দেয়া হলেও সিরীয়দের ক্ষেত্রে তা অনির্দিষ্টকাল বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়।

অভিবাসীদের ঠেকাতে ট্রাম্পের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছে দেশটির আদালত। আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন (এসিএলইউ) এর একটি আবেদনের প্রেক্ষিতে রোববার যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশ সাময়িক স্থগিত করেছেন।

আইনজীবী অ্যান ডোন্নেলি ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশকে অসাংবিধানিক বলে তা বাতিল করে দেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও ডিএইচএস বলছে, ‘আমেরিকান জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে স্বাভাবিকভাবেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সব নির্বাহী আদেশ কার্যকর করা হবে।’

ডিএইচএস আরো বলেছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশ বলবৎ রয়েছে- নিষিদ্ধ ভ্রমণ নিষিদ্ধ থাকবেই। জননিরাপত্তা ও জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে যেকোনো সময় ভিসা প্রত্যাহারে মার্কিন সরকারের অধিকার রয়েছে।

হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারাও বলেছেন, আদালতের রায়ে কোনো কিছুই নেই; যা নির্বাহী আদেশকে বাধা দিবে। প্রেসিডেন্টের আদেশ পুরোপুরি কার্যকর রয়েছে।

সূত্র : দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট।






মন্তব্য চালু নেই