মেইন ম্যেনু

আইস বাকেট চ্যালেঞ্জ সেকেলে: পামেলা

গোটা দুনিয়ায় চলছে এখন আইস বাকেট চ্যালেঞ্জের খেলা। হলি বলির অনেক তারকাই এ চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছেন। কিন্তু ব্যতিক্রম কথা বললেন পামেলা অ্যান্ডারসন। তিনি মনে করেন এ চ্যালেঞ্জটা সেকেলে।

পামেলা বলেন, ‘এর চেয়ে ভালো কোনো চ্যালেঞ্জ দিলে ভাবতাম। মানুষকে সচেতন করা ভালো। তবে সেটা হতে হবে মজার ছলে। আর যারা এটা করছেন আমি বলবো তাদের উচিৎ বিজ্ঞানীদের সাহয্য করা। যাতে করে বিজ্ঞানীরা এ রোগের ওষুধ আবিষ্কার করতে পারেন।’

বলে রাখা ভালো, আইস বাকেট চ্যালেঞ্জ হচ্ছে এক বালতি বরফ শীতল পানি গায়ে ঢালার চ্যালেঞ্জ কেউ দিলে নিতেই হবে। তা না হলে ১০০ ডলার দান করতে হবে এ এল এস অ্যাসোসিয়েশনকে l এখানেই শেষ নয় আরও তিনজনকে সেই বরফ পানিতে ভেজাতে হবেl

স্নায়ু রোগে আক্রান্তদের জন্য তহবিল গড়ার জন্য এই খেলাটি প্রথম শুরু করেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেসবল খেলোয়াড় ও এএলএস রোগী পিট ফ্রেটস l এএলএস পুরো কথাটি হলো অ্যামিওট্রফিক ল্যাটারাল স্ক্লেরোসিস। এটি এমন একটি রোগ যাতে স্নায়ুকোষ, মস্তিষ্ক ও মেরুদণ্ড আক্রান্ত হয়। বিশ্বজুড়ে প্রতি ১ লক্ষে ২ জন বিরল এই রোগে আক্রান্ত হয়। ১ জুন থেকে ১৩ আগস্ট পর্যন্ত শুধুমাত্র ফেসবুকে আইস বাকেট চ্যালেঞ্জ -এর ১২ লক্ষ ভিডিও শেয়ার করা হয়েছেl

এলএস ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত আইস বাকেট চ্যালেঞ্জের তহবিলে জমা পড়েছে ২৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি।






মন্তব্য চালু নেই