মেইন ম্যেনু

অভিনন্দন জানাতে সেই মা-ছেলের বাড়িতে এমপি-ডিসি

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় এক সঙ্গে সেই মা-ছেলের এসএসসি পাসের সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশের পর তাদের বাড়িতে গিয়ে অভিনন্দন জানালেন নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট আবুল কালাম ও জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন। শনিবার সকালে পৃথকভাবে তারা গালিমপুরে ওই মা-ছেলের বাড়িতে যান।

সকাল সাড়ে দশটার দিকে এমপি কালাম সেখানে পৌঁছে মা মলি রাণী কুণ্ডু ও ছেলে মৃন্ময় কুমার কুণ্ডুকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এ সময় তিনি তাদের নগদ অর্থ উপহার দেন এবং পরবর্তীতে তাদের পড়ালেখা চালিয়ে যেতে আরো সহায়তা প্রদানের আশ্বাস দেন। সে সময় তার সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার রহমানসহ বিভিন্ন নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে বেলা ১১ টার দিকে নাটোর জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন মিষ্টি ও ফুল নিয়ে উদ্যমী নারী মলি রাণীর বাড়িতে পৌঁছান। বয়সের বাধাকে উপেক্ষা করে ছেলের সঙ্গে একসাথে এসএসসি পাস করায় তিনি মলি রাণীকে অভিনন্দন জানান। মা-ছেলের সফলতায় উভয়কে জেলা প্রশাসক নিজ হাতে তাদের মিষ্টি খাওয়ান এবং নিজেও তাদের হাতে মিষ্টি খান। এছাড়াও মলি রাণী ও মৃন্ময়ের পড়ালেখা চালিয়ে যেতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়।

এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ড. চিত্রলেখা নাজনীন, ইউএনও লিয়াকত আলী সেখ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আহসান হাবিব জিতু, ওসি মনিরুল ইসলাম, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ৩৫ বছর বয়সে ছেলের সঙ্গে পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ ৪ দশমিক ৫৩ পেয়ে এসএসসি পাস করেন মলি রাণী কুণ্ডু এবং ছেলে মৃন্ময় কুমার কুণ্ডু পান জিপিএ ৪ দশমিক ৪৩। দুজনেই কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে পরীক্ষায় অংশ নেয়। মা মলি বাগাতিপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ড্রেস মেকিং এন্ড টেইলারিং ট্রেডের এবং ছেলে মৃন্ময় বাগাতিপাড়া মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বিল্ডিং মেইনটেনেন্স ট্রেডের শিক্ষার্থী ছিলেন।

শুক্রবার তাদের পাসের খবর বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।






মন্তব্য চালু নেই