মেইন ম্যেনু

অপহরণ ও হত্যার সঙ্গে বিএনপি জড়িত : হাছান মাহমুদ

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, অপহরণ, গুম ও খুনের সঙ্গে বিএনপি ও তার দোসররা জড়িত। তারা ক্ষমতায় থাকার সময়ও এ ধরনের কাজ করেছে, এখনো তা অব্যাহত রেখেছে।

‘হত্যা ও গুমের সঙ্গে আওয়ামী লীগ জড়িত’- বেগম খালেদা জিয়ার এই বক্তব্যের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে আওয়ামী লীগের ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন হাছান মাহমুদ।

হাসান মাহমুদ বলেন, আওয়ামী লীগ গুম-খুনের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। অপহরণ, হত্যা, সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের সঙ্গে যে-ই জড়িত হোক না কেন, কিংবা যে দলেরই হোক না কেন, তাদের শনাক্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ‘২০১৩ সাল জুড়ে যারা দেশে অস্থিরতা তৈরি করেছিল, অপহরণ ও গুমে তাদের সম্পৃক্ততা রয়েছে কি না, সে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। খালেদা জিয়া সন্ত্রাসের নেত্রী। হত্যা, গুম ও অপহরণের সঙ্গে তার দলের নেতা-কর্মীরা যুক্ত। ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত আওয়ামী লীগের ২১ হাজার নেতা-কর্মীকে হত্যা ও গুম করা হয়। ২০০১ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত ৮ হাজার ৪৩৩ জন হত্যা গুমের শিকার হয়েছেন। হত্যা ও গুমের রাজনীতি থেকে নিজ দলের নেতা-কর্মীরাও রক্ষা পায়নি।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘যারা দেশের উন্নয়ন ও গণতন্ত্র ধ্বংস করতে চায়, অতীতের মতো হত্যা, সন্ত্রাস, দুর্নীতি, লুটপাটের রাজত্ব কায়েম করতে চায়, তাদের ষড়যন্ত্র রুখে দাঁড়াতে হবে।’

নারায়ণগঞ্জে অপহরণ ও হত্যার ঘটনা সিটি মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী যে মন্তব্য করেছেন তা রাজনৈতিক উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘তিনি তার প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য এমন বক্তব্য দেন। ত্বকী হত্যার পরও তিনি এমন বক্তব্য দিয়েছিলেন।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, উপপ্রচার সম্পাদক অসীম কুমার উকিল ও প্রাক্তন দপ্তর সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুল মান্নান খান প্রমুখ।

 






মন্তব্য চালু নেই