মেইন ম্যেনু

অপহরণের ঘটনায় নায়িকা মাহী পলাতক !

চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা আবু বকর সবুজ গত নয় দিন ধরে নিখোঁজ। তাকে অপহরণ করা হয়েছে এমন দাবি করে তার পরিবার ওই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছে।

ইতিমধ্যে জাজ মাল্টিমিডিয়া লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল আজিজ ও সিইও শীষ মনোয়ারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চিত্রনায়িকা মাহীয়া মাহীকে পুলিশ খুঁজছে বলে জানা গেছে।
অসমির্থিত একটি সূত্র বলেছে, আত্মগোপনে থাকা মাহী শ্যুটিংয়ের অজুহাতে দেশ ছাড়ার চেষ্টা করছেন।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সালাউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘সবুজকে অপহরণের অভিযোগে শনিবার ভোর ৬টার দিকে মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে শীষ মনোয়ার ও আজিজকে গ্রেপ্তারের পর ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে আদালতে পাঠানো হয়। শুনানী শেষে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ভিকটিম উদ্ধারের চেষ্টা করছে পুলিশ।’

তিনি বলেন, ‘তদন্তের প্রয়োজনে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট কয়েকজনকে আটকের চেষ্টা চলছে। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা গেলে ভিকটিম উদ্ধার এবং রহস্য উদঘাটন হতে পারে।’

আবু বকরের বাবা আবদুর রহিম জানান, গত ২৬ এপ্রিল সকাল ১০টার দিকে মিরপুরের বাসা থেকে অফিসের উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যান তার ছেলে। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ নেই। আবু বকরের স্ত্রী সানজিদা আফরিন স্বামীর মুঠোফোনে যোগাযোগ করেও তা বন্ধ পান।

এ ব্যাপারে ২৬ এপ্রিল রাতেই পরিবারের পক্ষ থেকে মিরপুর ও রমনা থানায় পৃথক সাধারণ ডায়েরি করা হয়। পরে অপহরণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানের নানা অনিয়মের খবর জেনে যাওয়ায় কর্মকর্তারা তাকে অপহরণ করতে পারেন এমন অভিযোগ আনা হয়েছে।

এদিকে জাজ মাল্টিমিডিয়ার বিরুদ্ধে অপকর্মের অভিযোগ পুরনো। কয়েকমাস আগে ঠুনকো অজুহাতে মগবাজার এলাকায় একজনকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ রয়েছে এই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে।
এছাড়া এফডিসির ভেতর একজন পুলিশ সদস্যকে মারধরের অভিযোগ রয়েছে জাজ মিডিয়ার মস্যানেজার উজ্জলের বিরুদ্ধে। এরআগে চিএনায়ক শাকিব খানকে হত্যার হুমকি দিয়ে বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন শীষ মনোয়ার।

একাধিক সূত্র বলেছে, জাজ মাল্টিমিডিয়া ডিজিটাল সিনেমা তৈরি ও হলে প্রদর্শনীর নামে হল মালিকদের জিম্মি করে রেখেছে। তারা সব সিনেমা হলে ডিজিটাল মেশিন সরবরাহ করে ইচ্ছেমতো ভাড়া আদায় করছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই